থাইল্যান্ডে ১৯ রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

মালয়েশিয়ায় চাকরি পাওয়ার প্রলোভনে থাইল্যান্ড পর্যন্ত গিয়ে গ্রেপ্তার হয়েছেন মিয়ানমারের ১৯ রোহিঙ্গা নাগরিক। এদের মধ্যে সাতজনের শরীরে আবার করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া এক থাই নারীকেও গ্রেপ্তার করেছে ব্যাংকক পুলিশ।

মিয়ানমারের রোহিঙ্গারা গণহত্যার শিকার হচ্ছেন দীর্ঘদিন ধরে। দেশটির সেনাবাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে লাখ-লাখ মানুষ বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। অনেকে আবার পার্শ্ববর্তী অন্য দেশে গেছেন। কেউ কেউ এখনো যাওয়ার চেষ্টা করছেন। ব্যাংকক পুলিশ জানিয়েছে, ডন মুয়াং জেলার একটি বাড়ি থেকে অভিযুক্ত রোহিঙ্গাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীদের মালয়েশিয়ায় চাকরি দেয়ার কথা বলে থাইল্যান্ডে ঢোকানো হয়। দেশটিতে তারা কী কাজ করবেন, তা বলা হয়নি। যে বাড়িতে ছিলেন, ওই বাড়ির পুরুষ সদস্য পাচারের মূলহোতা। বিবৃতিতে পুলিশ বলেছে,‘কী কাজ দেয়া হবে,তা কেউই জানত না। এরা শুধু রাখাইন থেকে পালাতে চেয়েছে।’করোনা আক্রান্ত সাত রোহিঙ্গাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। অন্যদের রাখা হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে।

১ মন্তব্য

  1. I’ve been exploring for a bit for any high-quality articles or blog posts on this sort of area . Exploring in Yahoo I at last stumbled upon this website. Reading this information So i am happy to convey that I have an incredibly good uncanny feeling I discovered exactly what I needed. I most certainly will make sure to do not forget this website and give it a glance regularly.

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন