১৭ কোটি টাকায় লবিস্ট ভাড়া করল মিয়ানমার সেনাবাহিনী

যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কাছে নিজেদের ‘আসল পরিস্থিতি’ তুলে ধরতে ইসরায়েলি বংশোদ্ভূত কানাডীয় লবিস্ট নিয়োগ দিয়েছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। লবিস্টের সঙ্গে তাদের প্রায় ১৭ কোটি টাকার চুক্তি হয়েছে। ১ ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানের পর ৬০ জনের বেশি বিক্ষোভকারী নিহত ও প্রায় ২ হাজার মানুষ গ্রেপ্তার হওয়ার পর এমন ঘোষণা দিল দেশটি।

রয়টার্স জানিয়েছে, আরি বেন-মেনাশে নামের এই লবিস্ট মূলত ইসরায়েলের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার একজন সাবেক কর্মকর্তা। এর আগে তিনি জিম্বাবুয়ের রবার্ট মুগাবে এবং সুদানের সামরিক শাসকদের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তার লবিস্ট ফার্ম ডিকেন্স অ্যান্ড ম্যাডসনের অফিস কানাডায়। মিয়ানমারের জান্তা সরকারের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ইসরায়েলসহ অন্যান্য দেশে তাদের পক্ষে লবিং করবে ডিকেন্স অ্যান্ড ম্যাডসন। এছাড়া জাতিসংঘ ও আফ্রিকান ইউনিয়নসহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থাতেও মিয়ানমারের হয়ে প্রচারণা চালাবে তারা।

লবিস্ট ফার্মটি জানিয়েছে, বর্মি কর্মকর্তারা বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদেরও ফেরত নিতে চায়। এজন্য তারা সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে যোগাযোগ করছে একটি তহবিল সংগ্রহের জন্য।অভ্যুত্থানের পর যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানমারকে কয়েকবার সতর্ক করেছে। নিউজিল্যান্ডসহ কয়েকটি দেশ সম্পর্ক আপাতত বন্ধ রেখেছে। জাতিসংঘ চেষ্টা করছে বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা আরোপের।

১ মন্তব্য

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন