ঈশ্বরগঞ্জে ভিজিডি চাল নিতে এসে এক নারী লাঞ্চিত

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের মাইজবাগ ইউনিয়নে ভিজিডি চাল নিতে এসে এক নারী লাঞ্চিত। চেয়ারম্যান আনোয়ার পারভেজের নির্দেশে সচিব রফিকুল এবং ফারুক বিধবা নারীটিকে উলঙ্গ করে জুতা দিয়ে পিটিয়ে লাঞ্চিত করে। এমনটাই জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।এমন লাঞ্ছনার পর ওই নারী কেঁদে কেঁদে অভিযোগ করেন সাংবাদিকদের কাছে। পাশাপাশি এর সূক্ষ্ম বিচার প্রার্থনা করেন।ওই নারী বলেন: “আমাকে চালের কার্ড দেয়ার পর লাইনে দাঁড়াই।

অনেক্ষণ ধরে দাঁড়ানোর পর তারা বলে চাল শেষ হয়ে গেছে।আমি চাল চাইতে ভিতরে গেলে আমাকে জোতা দিয়ে মারে।আমি এই বিচার কার কাছে দিবো?” ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন এলাকাবাসী।এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ও বিচার প্রার্থনা করেন অনেকে।ওই নারী আরো বলেন: চেয়ারম্যানের সামনেই তাকে অপমান অপদস্থ করা হয়। চেয়ারম্যান এর কাছে বিচার দিলেও চেয়ারম্যান বলে ,তুমি বসো বিচার করবো।তবে ওই মহিলার দাবি চেয়ারম্যান এর নির্দেশেই তাকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। মহিলার কথা অনুযায়ী জানা যায় তার বাড়ি অত্র ইউনিয়ন এর কুমড়াশাষন গ্রামে।তিন বছর আগে স্বামী হারান তিনি।তার তিনটি সন্তান রয়েছে।

তবে অনেকে বলছেন ওই মহিলাটি মিথ্যাবাদী হতে পারে।হয়তো কোন ব্যাক্তিগত সত্রুতার জেড়েও এরকম করতে পারে।তবে ঘটনা যাই হোক,যেই দোষী হোক। তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের বিচার এর আওতায় আনার দাবি সাধারণ জনগণের।

বার্তা প্রেরক
আজহারুল  ইসলাম জুয়েল
ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন