বসুরহাট সীমান্তে সড়ক অবরোধ করে মির্জা বিরোধী সমাবেশ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ বসুরহাট সীমান্তের  ফেনীর দাগনভূঁঞা  চাঁদপুর এলাকায় সড়ক অবরোধ করে আলোচিত-সমালোচিত বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে দাগনভূঁঞা উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন।

 

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে শুরু হয় প্রতিবাদ সমাবেশটি। প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজক দাগনভূঁঞা উপজেলা আওয়ামী লীগ হলেও পুরো জেলা থেকে প্রায় শতাধিক বাসে করে নেতাকর্মী আসতে দেখা গেছে। সড়কের প্রায় দুই কিলোমিটার জুড়ে নেতা-কর্মীরা রাস্তায় বসে পড়ে এবং মির্জার বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকে।

 

সমাবেশে বক্তারা বলেন, মাদকাসক্ত আবদুল কাদের মির্জা সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, ফেনীর সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারীসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের বিরুদ্ধে কুৎসা রটাচ্ছে। আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে। তার অপরাজনীতির কারণে নোয়াখালী- ফেনী অঞ্চল আজ অশান্ত। এই অপরাজনীতির কারণে প্রাণ হারাতে হয়েছে তরুণ সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কেরকে।

 

বক্তারা আরো বলেন, মির্জা আবদুল কাদের বিএনপি জামায়াতের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছে। সে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে মেতেছে।

 

আওয়ামী লীগের নেতারা প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার কাছে দাবী জানান, কাদের মির্জাকে যেন দল থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়।

 

নেতারা আরো বলেন, সে সীমালঙ্গন করছে। তাকে ফেনীর সীমান্তে কোন ভাবেই প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।

ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা আরো বলেন,

নোয়াখালীর প্রশাসনের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে শুরু করে নোয়াখালী জেলা প্রশাসন,  পুলিশ প্রশাসন  ও উপজেলা প্রশাসনের কাছে জোরালো দাবী জানাচ্ছি এ তথাকথিত ভন্ড, মতলববাজ, চাঁদাবাজের কোন আদেশ,  কোন নির্দেশনা না শুনে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সাথে সাথে তাকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে পাবনা মানসিক হাসপাতালে অথবা যে কোন উন্নতমানের মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে প্রেরণ করা হোক।

 

এসময় নেতারা আরো বলেন, কাদের মির্জা ও তার ছেলে মিলে বসুরহাটকে সন্ত্রাস ও মাদকের স্বর্গরাজ্য বানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের জ্যাকশন হাইটসে একটি হোটেলে বৈঠক করেন এবং তারেক রহমানের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারে লিপ্ত হয়েছে।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সোনাগাজী  উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন, দাগনভূঁঞা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মাস্টার কামাল উদ্দিন, জেলা যুবলীগ সভাপতি ও দাগনভূঁঞা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন, ফেনী পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী, ছাগলনাইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শুসেন চন্দ্র শীল, সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র এডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন প্রমূখ।

উল্লেখ যে, সোমবার কাদের মির্জা ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ একই  স্থানে সমাবেশ আয়োজন করায় সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।

বার্তা প্রেরক
শেখ আশিকুন্নবী সজীব
ফেনী প্রতিনিধি

১ মন্তব্য

  1. The hair color is very good, and the color is no different from my own hair. Secondly, the effect is definitely natural, and the amount of hair on the top of my head is very small if it is oily. When necessary, this wig still has a big effect. My friends said it was natural when I saw it, but I couldn’t tell it was fake, so I recommend buying it.

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন