ফেনীর ধলিয়াতে বসত ঘরে আগুনে দগ্ধ যুবকের লাশ উদ্ধার

ফেনীর ধলিয়াতে বসত ঘরে আগুনের ঘটনায় ঘুমন্ত অবস্থায় দগ্ধ হয়ে মো. রায়হান সোহাগ (২৮) নামের এক যুবকের বিকৃত লাশ উদ্ধার করেছে স্থানীয় লোকজন। গত সোমবার গভীর রাতে ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউপির অলিপুর গ্রামের আবুল বাশার সবুজ মেম্বার বাড়ীর নুর নবীর বসতঘরে এ দূর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সোহাগ ওই গ্রামের মৃত সালেহ আহমদের ছেলে। এ ঘটনায় শোকে বিহবল হয়ে পড়ে নিহতের স্বজন ও আশপাশের লোকজন।খবর পেয়ে ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা ও ফেনী সদর মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. ওমর হায়দার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার গভীর রাতে ধলিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ অলিপুর গ্রামে আবুল বশর সবুজ মেম্বার বাড়ির নুর নবীর ঘরে বৈদ্যুতিক শটসার্কিটের মাধ্যমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে মুহুর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফেনী ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

আগুনে পুরো ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ঘরের ভিতরে থাকা মো. রায়হান ওরফে সোহাগ অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায়। স্থানীয় লোকজন  মঙ্গলবার সকাল বেলায় টিনের ভিতরে তার লাশ পড়ে থাকতে দেখে বিকৃত লাশটি উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

ধলিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার আবুল বশর সবুজ জানান, ঘরের মালিক নুর নবী সেনাবাহিনী থেকে অবসর গ্রহণ করেছেন। তিনি পরিবার নিয়ে ঢাকায় থাকেন। সোহাগকে ওই ঘরে পাহারা থাকার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। অগ্নিকান্ডের রাতে নিহত সোহাগ একা ঘরে ঘুমিয়ে ছিলো।

ফেনী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক পূর্ণ চন্দ্র মুৎসুদ্দী জানান, বৈদ্যুতিক শটসার্কিটে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। অগ্নিকাণ্ডে বসতঘরটি পুড়ে যায় এবং আনুমানিক প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে। ফেনী সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন ফেনীর ধলিয়ায় বতসঘরে আগুনের ঘটনায় ঘুমন্ত অবস্থায় দগ্ধ হয়ে পুড়ে মারা যাওয়া এক যুবকের বিকৃত লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

বার্তা প্রেরক
শেখ আশিকুন্নবী সজীব
ফেনী প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন