ধুনটে পল্লী চিকিৎসকের জমি বেদখলের অভিযোগ

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় এক পল্লী চিকিৎসকের ঘর উত্তোলন কাজে বাধা দিয়ে জমি বেদখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পল্লী চিকিৎসক আশরাফ আলী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ধুনট থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নাংলু দক্ষিণপাড়া গ্রামের মুসা প্রামানিকের ছেলে আশরাফ আলী পৈত্রিক ও ক্রয় সূত্রে নাংলু মৌজার নাংলু গ্রামে ১৮৯৮ নম্বর দাগে ১০ শতক জমির মালিক। চারধারে বিভিন্ন ফলজ ও বনজ গাছপালা লাগিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তিনি ওই জমি ভোগদখল করে আসছেন। বর্তমানে ওই জমিতে মাটি ভরাট করে মুরগী লালন পালন করার উদ্দেশে ঘর নির্মান শুরু করেছেন।

এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকালের দিকে মোখলেছার রহমান ও তার ছেলে মুক্তার ওই জমিতে নির্মানাধীন ঘর নির্মান কাজে বাধা দিয়ে বেদখলের চেষ্টা করেন। এসময় জমিতে গিয়ে বাধা দিলে আশরাফ আলীকে হুমকি দেয় প্রতিপক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় পল্লী চিকিৎসক আশরাফ আলী বাদি হয়েছে বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ওই অভিযোগে মোখলেছার রহমান ও তার ছেলে মুক্তারকে আসামী করা হয়েছে।

এ বিষয়ে নাংলু গ্রামের মুক্তার বলেন, আশরাফ আলী জমিতে খননযন্ত্র বসিয়ে বালু উত্তোলন কাজে বাধা দেয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে। তাকে কোন প্রকার হুমকি দেয়া হয়নি। ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ ঘটনাটি সরেজমিন তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওযা হবে।

বার্তা প্রেরক
ফজলে রাব্বী মানু
ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন