টিকার বৈশ্বিক উদ্যোগে ‘থাকছে না’ যুক্তরাষ্ট্র

নভেল করোনাভাইরাসের টিকা তৈরি এবং সেটি সরবরাহ করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বে যে পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে, তার সঙ্গে না থাকার কথা জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। পৃথিবীর দেড় শতাধিক দেশ টিকার লড়াইয়ে ‘জয়ী হতে’ ভ্যাকসিনস গ্লোবাল অ্যাকসেস ফ্যাসিলিটি বা কোভ্যাক্সের উদ্যোগ গ্রহণ করছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, বিশ্বের যেসব দেশ ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক কোম্পানিগুলোর সঙ্গে আলাদা চুক্তি করছে তারাও কোভ্যাক্স থেকে অনেক সুবিধা পাবে। কারণ দ্বিপাক্ষিক চুক্তি কোনো কারণে ব্যর্থ হলে তখন এই উদ্যোগ থেকে ব্যাকআপ হিসেবে ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র বলছে তারা এসবের ভেতরে নেই। বরং আন্তর্জাতিকভাবে তারা পার্টনার জোগাড় করে ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে।

হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র জাড ডিয়ার মঙ্গলবার বলেন, ‘ভাইরাসের পরাজয় নিশ্চিত করতে যুক্তরাষ্ট্র আন্তর্জাতিক পার্টনারদের সঙ্গে জড়িত থাকবে। কিন্তু আমরা দুর্নীতিগ্রস্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং চীন প্রভাবিত বহুপক্ষীয় কোনো সংস্থা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হব না।’ পৃথিবীতে বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন চূড়ান্ত ধাপের ট্রায়ালে থাকলেও কোনোটির বৈশ্বিক অনুমোদন এখনো হয়নি।

রাশিয়া ইতিমধ্যে নিজেদের দেশে জাতীয়ভাবে একটি ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিয়েছে। চীনও একইভাবে একটি ভ্যাকসিনের ব্যবহার শুরু করেছে। যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, তৃতীয় বা চূড়ান্ত ধাপের ট্রায়াল শেষ হওয়ার আগে অক্টোবরে তারাও ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিতে পারে।

১ মন্তব্য

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন